রাজশাহীর তানোরে পলাতক আসামি ৬ বছর পর গ্রেফতার

0

নিজস্ব প্রতিবেদক :রাজশাহীর তানোর থানার বহুল আলোচিত শহীদুল হত্যাকান্ডের আসামিকে  গ্রেফতার করা হয়েছে । শনিবার (৩ সেপ্টেম্বর) রাত ২ টায় র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব ৫) এর অভিযানে তাঁকে গ্রেফতার করা হয়  । তিনি ওই হত্যা মামলার ১নং আসামী।

রবিবার (৩ সেপ্টেম্বর) সকালে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি নিশ্চিত করেন র‌্যাব ৫,এর  নাটোর জেলার সিপিসি ২ কোম্পানী উপ-অধিনায়ক সহকারী পুলিশ সুপার মো. রফিকুল ইসলাম ।

গ্রেফতারকৃত আসামি  মো. ময়েজ উদ্দিন (৫০)  পিতা মৃত মফিজ উদ্দিন ।  তানোর থানাের বহরইল গ্রামের বাসিন্দা । তাকে নাটোর জেলার বাগাতিপাড়া থানার মন্ডল পাড়া  গ্রাম থেকে  গ্রেফতার করা হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানা হয়, বিশেষ গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে নাটোর জেলার বাগাতিপাড়া থানাধীন মন্ডলপাড়া গ্রামে নাটোর জেলার সিপিসি ২ কোম্পানী অধিনায়ক অতি. পুলিশ সুপার মো. ফরহাদ হোসেন ও কোম্পানী উপ-অধিনায়ক সহকারী পুলিশ সুপার মো.  রফিকুল ইসলাম এর নেতৃত্বে অভিযান পরিচালনা করেন (র‌্যাব ৫) । এই অভিযানে শহীদুল হত্যাকান্ডের ১ নং আসামিকে গ্রেফতার করা হয় ।

উল্লেখ্য যে, ২০১৬ সালের নভেম্বর মাসে আসামী মো. ময়েজ উদ্দিন (৫০) এবং কয়েকজন ব্যাক্তিমিলে শহীদুল কে (৪১) হত্যা করেন । পরে তারা লাশ   ধান ক্ষেতে ফেলে রেখে পালিয়ে যান ।এঘটনায় শহীদুলের স্ত্রী মোছা. সফেরা বেগম (৫১) বাদী হয়ে তানোর থানায় (এফআইআর নং-২০, তাং ২৫/১১/২০১৬ ধারা : ৩০২/৩৪ পেনাল কোড, জিআর: ২৮৩/১৬) হত্যা মামলা  করেন । ঘটনার পর থেকে ময়েজ উদ্দিন পলাতক ছিলেন। পরবর্তীতে পুলিশ তদন্ত করে ময়েজ উদ্দীনকে ১ নম্বর আসামী হিসেবে অভিযুক্ত করে মোট ৬ জনের বিরুদ্ধে বিজ্ঞ আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে ।

হত্যাকান্ডের বিষয়ে আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে মৃত শহীদুল হত্যা করার কথা স্বীকার করেন। পরে  আসামীকে রাজশাহী জেলার তানোর থানায় হস্থান্তর করা হয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে