২০ রোজার মধ্যে গার্মেন্টস শ্রমিকদের বোনাস-বকেয়া পরিশোধের দাবি

0

শান্ত খান,ঢাকা ঃ ২০ রোজার মধ্যে গার্মেন্টস শ্রমিকদের ঈদের বোনাস ও এপ্রিল মাসের পূর্ণ বেতন-ভাতা পরিশোধের দাবি জানিয়েছে গার্মেন্টস শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সাভার ইউনিট কমিটি।

মঙ্গলবার (১৯ এপ্রিল) বিকালে সাভারের ধসে পড়া রানা প্লাজার সামনে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশে এই দাবি জানায়।
সব পোশাক কারখানায় ২০ রোজার মধ্যে শ্রমিকদের মূল বেতনের সমান ঈদ বোনাস ও এপ্রিল মাসের পূর্ণ বেতন এবং জাতীয় ন্যূনতম মজুরি ২০ হাজার টাকা ঘোষণার দাবি জানায় গার্মেন্টস শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র।
মানববন্ধন ও সংক্ষিপ্ত সমাবেশে গার্মেন্টস শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সাভার ইউনিট কমিটির সভাপতি এমদাদুল হক এমদাদ বলেন, “আমরা শ্রমিকদের এপ্রিল মাসের পূর্ণ বেতন ও ঈদ বোনাস ২০ রোজার মধ্যে দেওয়ার জন্য দাবি জানাচ্ছি।
“শ্রমিকদের জন্য ঈদ কখনও আনন্দের হয়ে আসে না, ঈদের আগের দিন পর্যন্ত তাদের কাজ করতে হয়। ঈদের আগে এপ্রিল মাসের পূর্ণ বেতন দেওয়া হলে আনন্দের না হোক অন্তত ঈদটা তাদের স্বস্তির হবে।”
জাতীয় ন্যূনতম মজুরি ২০ হাজার টাকার ঘোষণার দাবি জানিয়ে তিনি বলেন, “দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির বাজারে আমরা হিসেব করে দেখেছি ২০ হাজার টাকার কমে কোনো পরিবার চলতে পারে না।
“তাই আর টালবাহানা না করে অবিলম্বে জাতীয় ন্যূনতম এই মজুরি ঘোষণা করা হোক।”
তিনি আরো বলেন, “ঈদ বোসান কোনো দয়া বা প্রথা নয়, এটি শ্রমিকদের আইনত অধিকার; তাই ২০ রোজার মধ্যে শ্রমিকদের ঈদ বোনাস এবং বকেয়া বেতন ভাতা পরিশোধ করতে হবে।”

এসময় উপস্থিত ছিলেন, গার্মেন্টস শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ইদ্রিস আলী, সাভার আশুলিয়া ধামরাই আঞ্চলিক কমিটির সভাপতি সাইফুল আল মামুন, সাধারণ সম্পাদক খাইরুল মামুন মিন্টু, বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সাভার আশুলিয়া ধামরাই আঞ্চলিক কমিটির সাধারণ সম্পাদক, মঞ্জুরুল ইসলাম মঞ্জু, সাভার ইউনিট কমিটির নেতা নাসির উদ্দিন, নজরুল ইসলাম সহ বিভিন্ন কারখানার শ্রমিকরা।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে