রক্ত দেওয়ার জন্য ডেকে নিয়ে হোটেল কক্ষে তরুণীকে ধর্ষণ

0

সিলেট প্রতিনিধি: সিলেটে রক্ত দেওয়া কথা বলে ডেকে নিয়ে দুই তরুণীকে হোটেল কক্ষে আটকে রেখে পালাক্রমে ধর্ষণের ঘটনায় এক আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর থেকে এ ধর্ষণ মামলার অন্যতম আসামি রাহিকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। আজ রোববার গ্রেপ্তার হওয়া রাহিকে আদালতে পাঠিয়ে ৫ দিনের রিমান্ডের আবেদন করেছে পুলিশ।

গ্রেপ্তার হওয়া মাহাইমিন রহমান রাহি (৩৩) সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলার নগর গ্রামের মৃত আব্দুর রহমানের ছেলে। বিষয়টি আজকের পত্রিকাকে নিশ্চিত করেছেন সিলেট মহানগর পুলিশের (এসএমপি) জালালাবাদ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নাজমুল হুদা খান।

প্রতিকি ছবি

আজকের পত্রিকা অনলাইনের সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন
থানা–পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত ২৩ আগস্ট দিবাগত রাতে নগরের পাঠানটুলা এলাকার জালালাবাদ রাগীব-রাবেয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পার্শ্ববর্তী গ্রিন হিল আবাসিক হোটেলের দুটি কক্ষে দুই তরুণীকে আটকে রেখে রাতভর পালাক্রমে ধর্ষণের অভিযোগ ওঠে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী দুই তরুণী সিলেটের জালালাবাদ থানায় পৃথক মামলা দায়ের করেন।

মামলার আসামিরা হলেন—সুনামগঞ্জের শান্তিগঞ্জ উপজেলার জয়সিদ্ধি গ্রামের দবির মিয়ার মেয়ে ও নগরের শাহজালাল উপশহরের এইচ ব্লকের ৪ নম্বর রোডের আলী ভিলার ৫ তলার বাসিন্দা তানজিনা আক্তার তানিয়া (২৫), সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলার নগর গ্রামের মৃত আব্দুর রহমানের ছেলে মোহাইমিন রহমান রাহি (৩৩), সুনামগঞ্জ জেলার ছাতক থানার গোবিন্দগঞ্জ গ্রামের মৃত তহুর আলীর ছেলে জুবেল (৩১), সিলেট নগরীর পাঠানটুলা এলাকার আলী আকবরের ছেলে রানা আহমদ শিপলু ওরফে শিবলু (৩৫), সুনামগঞ্জ সদর থানার হরিনাপাট গ্রামের ফরহাদ রাজা চৌধুরীর ছেলে নাবিল রাজা চৌধুরী (৩৫) ও সুজন (৩৫) এবং অজ্ঞাত আরও ৫-৬ জন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে