পাইলটদের ধর্মঘট: লুফথানসার ৮০০ ফ্লাইট বাতিল

0

নিউজ ডেস্ক: বেতন বৃদ্ধির দাবিতে পাইলটদের একদিনের ধর্মঘট ঘোষণার পর জার্মানির লুফথানসা কর্তৃপক্ষ শুক্রবার (২ সেপ্টেম্বর) আটশ ফ্লাইট বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এতে ভোগান্তিতে পড়ছে অন্তত ১ লাখ ৩০ হাজার যাত্রী।

ভেরিনিগুং ককপিট (ভিসি) ইউনিয়ন বুধবার জানায় যে বেতন নিয়ে আলোচনায় তারা ব্যর্থ হয়েছে এবং লুফথানসার পাইলটরা বৃহস্পতিবার মধ্যরাতের পর থেকে ২৪ ঘন্টা ধর্মঘট পালনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এতে যাত্রী ও পণ্যবাহী কার্গো উভয় পরিষেবা বিঘ্নিত হবে।

ভিসির দাবি এ বছর পাঁচ হাজারের বেশি পাইলটের জন্য ৫ দশমিক ৫ শতাংশ বেতন বৃদ্ধি এবং মূল্যস্ফীতির কারণে ক্ষতিপূরণ দিতে হবে।

লুফথানসা কর্তৃপক্ষ বলছে যে ফ্লাইট বাতিল হওয়ায় ফ্রাঙ্কফুর্ট ও মিউনিখ বিমানবন্দরে প্রভাব পড়বে। এর আগে বৃহস্পতিবার বেশ কয়েকটি ফ্লাইট বাতিল করার কথা জানা যায়।

লুফথানসার এক মুখপাত্র বৃহস্পতিবার বলেন যে, ‘আমরা যত তাড়াতাড়ি সম্ভব আলোচনায় ফিরে আসার আশা করছি’। তবে মূল্যস্ফীতির কারণে ক্ষতিপূরণ দাবির বিষয়টি অযৌক্তিক মনে করেন তিনি।

ধর্মঘট ও কর্মী সংকটের কারণে এরই মধ্যে গ্রীষ্মে হাজার হাজার ফ্লাইট বাতিল করে লুফথানসাসহ অন্যান্য এয়ারলাইন। যেখানে করোনা মহামারি নিয়ন্ত্রণে আসার পর ঘুরতে বের হওয়া মানুষকে ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষা করতে হয়েছে ফ্লাইটের জন্য।

লুফথানসা এয়ারলাইন বেতন সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে এর আগে নিরাপত্তাকর্মী ও গ্রাউন্ড স্টাফদের ধর্মঘটের মুখোমুখি হয়েছে।

এয়ারলাইন কর্তৃপক্ষ বলছে যে শুক্রবারের পাইলটদের ধর্মঘটের প্রভাব কমানোর জন্য তারা সম্ভাব্য সবকিছু করছে। তবে সপ্তাহান্তে কিছু ক্ষেত্রে ফ্লাইট বাতিল বা বিলম্বকে এড়িয়ে যেতে পারছে না।

লুফথানসা নির্বাহী বোর্ডের সদস্য মাইকেল নিগেম্যান বলেছেন যে ধর্মঘটটি আসলে বোধগম্য নয়। তারা খুব ভাল এবং সামাজিকভাবে ভারসাম্যপূর্ণ অফারই রক্ষা করেছে।

এমন পরিস্থিতিতে এয়ারলাইনটির শেয়ার দর কমেছে ৩ দশমিক ৫ শতাংশ।

লুফথানসা হলো ইউরোপের সবচেয়ে বড় এয়ারলাইন গ্রুপ এবং এটি ইউরোউইংস, অস্ট্রিয়ান, সুইস এবং ব্রাসেলসেও ফ্লাইট পরিচালনা করে।

সূত্র: রয়টার্স

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে