শিবলী সাদিকের-“দুটি লাইনে সারা জীবনের কথা”

0

“দুটি লাইনে সারা জীবনের কথা”

লেখক -শিবলী সাদিক (এম পি)
————————————————–

হতাশার একটা বিশাল কাব্য লিখে দাও
সেখানে কষ্ট সুখ বেদনা যাই থাক না কেন, জীবনের সমস্ত কথা তো আর লেখা যাবে না,
কি অবাক করা একটা বিষয়, কখনো দুটি লাইন সারা জীবনের কথা বলে,
কখনো বা হাজার পৃষ্ঠায় লেখা কথা, কোন একটা মানে তৈরি করতে ব্যর্থ হয়, হতাশার কাব্যে একাকিত্বের কথা লিখে যেও, লিখে দিও হাজার শূন্যতার কথা, লিখতে পারো তুমি হারানোর বেদনা, কখনো বা লিখে দিও, ভালোবাসার কথা, ভাল লাগার কথা, প্রথম প্রেম দ্বিতীয় প্রেম তৃতীয় প্রেম, অতিবাহিত জীবনের প্রতিটি প্রেমের কথা,
কাছে আসার কথা, দূরে যাওয়ার কথা, ভুলে যাওয়ার কথা,
পৃথিবীতে ঘটে যাওয়া বিজয় উল্লাস, প্রাপ্তি অথবা শূন্য থেকে শিখরে ওঠার ব্যক্তিত্ব, ব্যক্তি, হাজারো অর্জন সফলতা, মানুষ দুচোখ ভরে দেখে, নিজের অবস্থান থেকে মনে মনে নিজেকেই ধিক্কার দিয়ে বেহায়ার মতো হাত তালি দেয়, হাস্যোজ্জ্বল চিৎকার করে বাহবা দেয়,
প্রতিটি মানুষ বিজয় সফলতা অবস্থানের প্রতি সমর্থন জানালেও, নিজেই সীমাহীন এক হতাশায় ডুবে থাকে, শূন্যতায় নিজেকে হারিয়ে ফেলে, হাজারো পথ অবারিত প্রান্তর থাকার পরেও মানুষ সীমাবদ্ধতার হাজারো গল্প লিখে রাখে নিজের হৃদয়ে,
বেঁচে থাকার মানে কখনো কখনো ধরা দেয় তাজা খড় খড়ে ওই নারকেল পাতা, পালন শাক ভেবে গ্রহণ করা, বিষাদময় অতৃপ্ত একখণ্ড বালির সন্দেশ, কখনো বা বিচুটি গাছের নির্যাস মেখে গরম রোদে বসে থাকা এক প্রাণ, ভদ্রলোকের সমাবেশে নিজের শরীরের বিশেষ অংশ চুলকানো নিষেধ, সমাজের লোক মন্দ বলবে বলে, নিজের অসহায়ত্বের প্রতি গোপাল ভাঁড়ের হাসির কথা, না শুনেও ভিতরে ভিতরে অট্টহাসিতে ফেটে পড়া, অসহায় এক ব্যক্তি, যে কিনা নিজেই জানে না বেঁচে থাকার সঠিক উক্তি,
আচারের স্বাদ যদি তেতো হত, নিশ্চয়ই দোকানে বিক্রি হতো না,
তেতোর স্বাদ নিতে এক টুকরো করলাই যথেষ্ট,
শৈশব থেকে লালন করা সাদাসিধে মনটাকে পৃথিবী একদম গোলমরিচের গুঁড়ো দিয়ে ঝাঁজালো একটা স্বাদে পরিণত করেছে,
মধ্য বয়সে দাড়িয়ে আর কদিন বাচার ইচ্ছে তোমার বলতো,
বাঁচতেই যদি চাও সব চাওয়া পাওয়াকে মুছে ফেলো, যদি সুখী হতে চাও
প্রত্যাশার সারিবদ্ধ ওই সংখ্যা গুলো মন থেকে মুছে ফেলো,
শুধু মনে একটি কথা রেখো বেঁচে আছি ভালো আছি
দুচোখ ভরে আকাশ দেখি
সামর্থ্য থাকলে সাগর দেখি
কখনো বা পাহাড় দেখি পাখি দেখি নদী দেখি,
সবুজ মাঠ পালতোলা নাও মাছ দেখি, ফুল দেখি, প্রজাপতি ঘাসফড়িং মৌমাছি যতটুকু সামর্থ্য আছে, যতটুকু সম্ভব সবকিছু দেখি,
শুধু দেখি না, দেখতে চাই না, মানুষকে,
শুধু বিচার করতে চাই না, তফাৎ খুঁজতে যাই না, মানুষের বিবেককে,
মনে রেখেছি হতাশার কাব্য থেকে
বেঁচে আছি ভালো আছি।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে