‘প্যান্ট নাকি পেন্টি- কোনটা কিনতে আসছেন?’

ডেস্ক নিউজ ঃ নিউ মার্কেট ও আশপাশের কয়েকটি মার্কেটের ব্যবসায়ীদের সঙ্গে ঢাকা কলেজের ছাত্রদের মধ্যকার সংঘর্ষের দিন থেকেই ‍তুমুল আলোচনা দোকানিদের দুর্ব্যবহারের বিষয়টি নিয়ে। সামাজিক মাধ্যমের এ শোরগোলের বিষয়টি ব্যবসায়ীদের কানেও গিয়েছে। এতদিন পাত্তা না দিলেও তাদের এখন ভাবতেই হচ্ছে বিষয়টি নিয়ে।

মঙ্গলবার দুই পক্ষ যখন ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ায় দিন পার করছিল, তখন ভুক্তভোগী নারীরা ফেসবুকে তাদের তিক্ত অভিজ্ঞতা তুলে ধরছিলেন। পরে ছেলেরাও লিখতে থাকে তাদের সঙ্গে ঘটে যাওয়া ঘটনাগুলো।

ক্রেতারা যে ক্ষিপ্ত, সেটি এখনও স্পষ্ট। আর এতদিন পর হুঁশ ফিরেছে ব্যবসায়ী নেতাদের। এখন ক্রেতাদের সঙ্গে ভালো আচরণ করতে বলছেন তারা। ঈদের পর বিষয়টি নিয়ে কাউন্সেলিংয়ের উদ্যোগ নেয়ার কথাও বলছে দোকান মালিক সমিতি।

তবে ব্যবসায়ী নেতাদের এসব কথাবার্তায় ক্রেতাদের যে আস্থা নেই, সেটি সামাজিক মাধ্যমের লেখনীতেই স্পষ্ট।

কটূক্তির কারণে মামলা করেও লাভ হয়নি

গণমাধ্যমকর্মী মারুফা রহমান নিউ মার্কেট লাগোয়া ধানমন্ডি হকার্স মার্কেটের নন্দিতা ফ্যাশনে প্যান্ট কিনতে গিয়ে কটূক্তি ও অপমানজনক কথাবার্তা শোনার পর মামলা করেছিলেন। সেই মামলা তুলে নিতে আবার ব্যবসায়ীদের পক্ষ থেকে ‍হুমকিও এসেছিল।

কয়েক বছর আগের ঘটনাটি নিয়ে ওঠা অভিযোগটির শুনানিও হয়েছিল আদালতে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত কী হয়েছে কিছুই জানেন না মারুফা।

গণমাধ্যমে কর্মী কে তিনি জানান, ছোট বোনকে নিয়ে প্যান্ট কিনতে গিয়ে পছন্দ হলেও কোমরের সাইজ না হওয়ায় নেবেন না জানালে দোকানি বাজে ব্যবহার করেন। দোকান থেকে বের হয়ে আসার সময় বাজে ভাষায় গালি দেন।

মারুফার ভাষ্য, তখন ফিরে গিয়ে ‘গালি কেন দিচ্ছেন’- এটা বললে দোকানি বলেন, ‘গালি দিছি, ঠিক করছি। তুই চলে যা। না হলে চোর সাজাইয়া মার্কেটের লোক দিয়া পিটামু।’

তখন আশপাশের দোকানিদের কাছে অভিযোগ জানান মারুফা। তারা উল্টো তাকে ধমক দিয়ে বলে, ‘মেয়ে মানুষ এত কথা না বলে মাথা নিচু করে চলে যান। আপনি আবার ফিরে আসছেন ক্যান? এতগুলো মাল দেখছেন নিবেন না কেন?’

তখন সবাই এক হয়ে আমাকে নিয়ে হাসাহাসি শুরু করে।

বাইরে বের হয়ে টহলরত এসআইকে বিষয়টি জানালে তিনি থানায় যাওয়ার পরামর্শ দেন মারুফাকে। থানায় গিয়ে অনেকক্ষণ বসে থাকার পর বিকেলে একজন এসআই তার সঙ্গে মার্কেটে যান। কিন্তু যারা তার সঙ্গে দুর্ব্যবহার করেছিল, তারা সে সময় ছিল না।

এরপর ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার পরামর্শে থানায় লিখিত অভিযোগ দেন মারুফা। সেখান থেকে জানানো হয়, ঢাকা মহানগর পুলিশের রমনা অঞ্চলের উপকমিশনার কিছুদিন পর জানাবেন।

এরপর দোকানের মালিক সমিতি থেকে বিভিন্ন হুমকি দিয়ে ফোন আসে মারুফার কাছে। বিষয়টি সুরাহার জন্য চাপ দেয়া হয়।

মামলার দুই বছর পর বিচারিক আদালত থেকে শুনানির জন্য ডাকা হয়। কিন্তু এরপর মার্কেটে গিয়ে একাধিকবার নন্দিতা ফ্যাশনে সেই কর্মচারীকে দেখেছেন তিনি।

মারামারির তিন দিন আগেও নিউমার্কেটে গিয়ে কটূক্তির শিকার হন মারুফার পরিচিত একজন। সেই অভিজ্ঞতা শেয়ার করে এই গণমাধ্যমকর্মী লেখেন, “নিউ মার্কেট থেকে একজন নারী প্যান্ট কিনতে গেলে দামাদামির একপর্যায়ে মেয়েটা দাম কম বললে দোকানদার উত্তর দেয়, ‘প্যান্ট নাকি পেন্টি- কোনটা কিনতে আসছেন?’

“দোকানদারের উপর চিল্লায়ে উঠলে আশপাশের দোকানদার মিলে মেয়েটাকেই দোষারোপ করে কম দাম বলার জন্য। এখন বলেন কী বলবেন এদের নিয়ে?”

না কিনলেই আজেবাজে মন্তব্য

আরেক গণমাধ্যমকর্মী মরিয়ম সুলতানা দৈনিক বাংলাকে বলেন, ‘দোকান কর্মচারীদের এমন অবস্থা যে, কোনো দোকানে জিনিস দেখলেই কিনতে হবে। না নিলে আজেবাজে মন্তব্য করে।

‘এত বছরেও নিউ মার্কেটের আকার বড় হলো না। গলি, ওভারব্রিজসহ আশপাশে এত সংকীর্ণ (কনজাস্টেড) যে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগতে হয়।’

তিনি মঙ্গলবার সংঘর্ষ চলাকালে ফেসবুকে লেখেন, ‘নিউ মার্কেট একটা সার্কাসের ময়দান, কারণ এখানে গেলে মাথায় রাখতে হয়- ব্যাগ সামনে নিয়ে হাঁটতে হবে। ভিড়ের মধ্যে অ্যাঙ্গেল করে হাঁটতে হবে। ১ হাজার টাকা দাম চাইলে ৫০০ টাকা, পারলে তারও কম বলতে হবে। জিন্স-টিন্স না পরে ঢিলেঢালা সালোয়ার-কামিজ পরতে হবে (সালোয়ার-কামিজ পরে ভিড়-ভাট্টা, যানবাহনে চলাচল রিস্কি হওয়া সত্ত্বেও), বাজে মন্তব্যের প্রতিবাদ করার শক্তি না থাকলে ওড়না ঠিকঠাক রাখতে হবে, অরিজিনাল লেদার আর আর্টিফিশিয়াল লেদারের পার্থক্য গুগল-টুগল করে আগে-ভাগে নিজে জেনে যেতে হবে, ইত্যাদি।’

এক দোকানি কটূক্তি শুরু করলে যোগ দেয় অন্যরাও

আরেক ভুক্তভোগী নুসরাত জাহান বলেন, ‘মার্কেটে গিয়েছি প্রয়োজনীয় কিছু জিনিসপত্র কিনতে৷ দাম শুনে বেশি মনে হওয়ায় বন্ধুকে বললাম- থাক দরকার নেই৷ দোকান থেকে বের হওয়ার সময় দোকানি বললেন, কিনবেন না তো এখানে আসছেন ক্যান? শুধু শুধু সময় নষ্ট করলেন।’

কটূক্তি করেই থাকেননি সেই দোকানি, পাশের দোকানিকেও বলেন সে কথা।

নুসরাত বলেন, ‘একদম বেরিয়ে যাচ্ছি; দেখি দোকানি ভদ্রলোক পাশের দোকানের লোকের দিকে তাকিয়ে বলছে, ‘কিনতে আসছে নাকি ঘুরতে আসছে৷ ভাব কত।’

তখন নুসরাত প্রতিবাদ জানান। বলেন, ‘আপনি এমন আচরণ করছেন কেন? আমি তো আপনার সঙ্গে একটা বাক্যও ব্যয় করিনি।’

এমন কথা শুনে সেই দোকানি ও আশপাশের অন্যরা একজোট হয়ে পড়ে। একজন বলেন, ‘আরে যান যান। এত কথা বাড়াচ্ছেন কেন?

নুসরাত বলেন, ‘এখানে এক দোকান কর্মচারী বাজে কথা বললে, পাশের হাজারো দোকানি একসঙ্গে সুর মিলিয়ে কথা বলে। তখন সবাই এক! অথচ ভালো কাজের জন্য দুটো মানুষও খুঁজে পাওয়া যায় না।’

আরেক ক্রেতা দৌলত আকতার তার অভিজ্ঞতা তুলে ধরে ফেসবুকে লিখেছেন, ‘এই মার্কেটগুলোর বেশির ভাগ বিক্রেতার সঙ্গে কথা বলতে হয় সাবধানে। উচ্চমূল্য দাবি করলেও রেগে যাওয়া যাবে না। ঠান্ডা মাথায় দরদাম করতে হবে নতুবা এরা একজোট হয়ে কথার বাক্যবানে জর্জরিত করবে আপনাকে। যাদের বাজারমূল্য সম্পর্কে ধারণা নেই, তাদের ধরা খাওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি। আমিও ঠকে ঠকেই শিখেছি কী করে দামদর করতে হয়। এখনো যে ঠকি না তা নয়।’

পণ্য কিনলেও বাদ যাবে না দুর্ব্যবহার

এ তো গেল কাপড়ের দোকানের কাহিনি। রুম্পা রায় দুর্ব্যবহারের শিকার হয়েছেন খাবারের দোকানে গিয়ে।

তিনি বলেন, ‘খাবারের দোকানের সামনে দিয়ে কর্মচারীদের ডাকাডাকি চলতেই থাকে। ছোট বোনকে নিয়ে নিউ মার্কেটের নিচে খাবারের দোকানে জুস অর্ডার করে অপেক্ষা করছি। দোকানটি ছিল পরিপূর্ণ। কিছুক্ষণ পর চার-পাঁচজন এলে বসার জায়গা না পেয়ে বেরিয়ে যায়।

“মাত্র খাওয়া শুরু করেছি এমন সময় কর্মচারী বলেন, ‘আপনাদের জন্য অন্য কাস্টমার এসে চলে গেছে। দুজন মেয়ে এমনভাবে বসছেন পাশে কাউকে বসানো যাচ্ছে না। খাবার অর্ডার করছেন কম, কিন্তু বসবেন বেশি সময়’।”

রুম্পা প্রতিবাদ করলে অন্য কর্মচারীরা তাকে গালাগাল করতে থাকে। একপর্যায়ে দোকানের অন্য ক্রেতারা একজোট হয়ে প্রতিবাদ করলে দোকানিরা চুপ হয়।’

নিউ মার্কেট বর্জনের ডাক

সংঘর্ষের মধ্যে নিউ মার্কেট বর্জনের ঘোষণাও এসেছে ফেসবুকে।

একাত্তর টিভির কর্মী হাসান আহমেদ ঘোষণা দিয়েছেন তিনি নিউ মার্কেটে আর কেনাটাকা করবেন না। ফেসবুকেই তিনি লেখেন, ‘নিউ মার্কেট আর এর ফুটপাত থেকে আর কখনো কিছু কিনবো না। শত কম দাম হলেও।’

সালেহ আখন্দ লিখেছেন, ‘আসুন কেনাকাটায় নিউ মার্কেট ও এর আশপাশের মার্কেটগুলো বর্জন করি।’

এতদিনে ফিরেছে হুঁশ

সোমবার রাতে শুরু হওয়া মারামারির জেরে ঈদ মৌসুমেও পরের দুদিন নিউ মার্কেট ছিল কার্যত বন্ধ। বুধবার রাতে সাদা পতাকা ওড়ানোর পরদিন বৃহস্পতিবার খোলে মার্কেট।

সেদিন ব্যবসায়ী, কর্মচারী, দোকান মালিকদের উদ্দেশে মাইকিং করা হয় নিউ মার্কেটে। তাতে বলা হয়, ‘খারাপ আচরণ করবেন না। কাউকে দোকানে নেয়ার জন্য বাধ্য করবেন না। হাতে ধরবেন না। পণ্যের মূল্য বলার পরেও ক্রেতাসাধারণ যদি তা নিতে অনাগ্রহ প্রকাশ করে, সে ক্ষেত্রে ক্রেতাদের সেই অধিকার প্রদানের জন্য দোকানিদের অনুরোধ জানানো হচ্ছে।‘

মাইকিংয়ে আরও বলা হয়, ‘কেউ কোনো প্রকার অসদাচরণ করবেন না। ক্রেতাসাধারণ অসন্তুষ্ট হয়, এমন আচরণ কেউ করবেন না। আপনাদের অনুরোধ করা হচ্ছে, ক্রেতাসাধারণের সঙ্গে যদি কোনো দোকান মালিক, ব্যবসায়ী, কর্মচারী এ ধরনের কোনো আচরণ করেন এবং তা প্রমাণিত হয়, তবে সমিতি কর্তৃপক্ষ কঠোর পদক্ষেপ নিতে বাধ্য হবে।’

বুধবার ঢাকা মহানগর দোকান মালিক সমিতি সংবাদ সম্মেলনে এসে বিষয়টি নিয়ে কথা বলে। ঈদের পর দোকানিদের এ বিষয়ে কাউন্সেলিং করানোর ঘোষণাও দেয়।

সমিতির সভাপতি হেলাল উদ্দীন বলেন, ‘আমাদের কর্মচারীরা খুব বেশি শিক্ষিত না। তাদের বোঝাতে হবে। কাস্টমারের সঙ্গে কীভাবে আচরণ করতে হয় সে বিষয়ে শেখাতে হবে।’

কোথাও দুর্ব্যবহারের শিকার হলে অভিযোগ করার পরামর্শও দেন হেলাল উদ্দিন। বলেন, ‘কোনো কাস্টমারের সঙ্গে তারা খারাপ ব্যবহার বা বেয়াদবি করলে সমিতির অফিসে অভিযোগ জানাবেন। আমরা ব্যবস্থা গ্রহণ করব।’

admin

Related Posts

প্রতিমন্ত্রীর পদমর্যাদা পাওয়ায় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি রাসিক মেয়র লিটনের কৃতজ্ঞতা প্রকাশ

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ প্রতিমন্ত্রীর পদমর্যাদা পেলেন রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মাননীয় মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। প্রতিমন্ত্রীর পদমর্যাদা প্রদান করায় রাজশাহীবাসীর পক্ষ থেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রতি অশেষ ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা…

আমরা পণ্যের দাম বাড়লে বেশি কিনি, অন্য দেশে দাম বাড়লে বর্জন করে : সমাজকল্যাণমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ সমাজকল্যাণমন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, ‘পৃথিবীর অন্যান্য দেশে কোন জিনিসের দাম বাড়লে সেই জিনিস লোকে কম কিনে বা বর্জন করে। আর আমাদের দেশে দাম বাড়লে সেই জিনিস কিনে…

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You Missed

রাজশাহীতে অভিনব কায়দায় পুকুর ভরাট

  • By admin
  • May 28, 2024
  • 8 views
রাজশাহীতে অভিনব কায়দায় পুকুর ভরাট

পানি ও বিদ্যুৎ সংকটে রাজশাহীতে মৎস্যচাষীরা

  • By admin
  • May 28, 2024
  • 9 views
পানি ও বিদ্যুৎ সংকটে রাজশাহীতে মৎস্যচাষীরা

আরএমপি’র সহকারী প্রশাসন জুলমাত হাবিবের বিরুদ্ধে নানা অনিয়ম দূর্নীতি’র অভিযোগ

  • By admin
  • May 28, 2024
  • 9 views
আরএমপি’র সহকারী প্রশাসন জুলমাত হাবিবের বিরুদ্ধে নানা অনিয়ম দূর্নীতি’র অভিযোগ

নিখোঁজ গৃহবধূ শাবানার সন্ধানের দাবীতে মানববন্ধন

  • By admin
  • May 26, 2024
  • 112 views
নিখোঁজ গৃহবধূ শাবানার সন্ধানের দাবীতে মানববন্ধন

রাজশাহীর পবা উপজেলায় পুকুর সংস্কারের নামে মাটি বিক্রির মহাউৎসব

  • By admin
  • May 26, 2024
  • 14 views
রাজশাহীর পবা উপজেলায় পুকুর সংস্কারের নামে মাটি বিক্রির মহাউৎসব

মতিহার থানা পুলিশের মিথ্যা মামলা থেকে বাঁচতে ভুক্তভোগী পরিবারের সংবাদ সম্মেলন

  • By admin
  • May 26, 2024
  • 42 views
মতিহার থানা পুলিশের মিথ্যা মামলা থেকে বাঁচতে ভুক্তভোগী পরিবারের সংবাদ সম্মেলন