বিস্ফোরণে বাবা-মায়ের মৃত্যু, শিশুটির প্রাণও শঙ্কায়

0

 

নিজস্ব প্রতিনিধি ঃ রাজধানীর যাত্রাবাড়ীতে বিস্ফোরণে দগ্ধ এক ব্যক্তি ও তার স্ত্রী দুই ঘণ্টার ব্যবধানে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। তাদের একমাত্র মেয়ে শিশুর অবস্থাও আশঙ্কাজনক।

সোমবার রাত ও ভোরে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে এই দম্পতির মৃত্যু হয়।

মারা যাওয়া দুজন হলেন ৩০ বছর বয়সী আব্দুল করিম ও তার স্ত্রী ২৫ বছর বয়সী মোছা. খাদিজা আক্তার। চিকিৎসাধীন তাদের দুই বছরের মেয়ের নাম ফাতেমা।

গত ২০ এপ্রিল রাত সাড়ে তিনটার দিকে যাত্রাবাড়ীর কোনাপাড়া এলাকার একটি বাসায় বিষ্ফোরণে দগ্ধ হন এই তিনজন। তাদেরকে ওইদিন ভোরে পাঁচটার দিকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

দুর্ঘটনার পর প্রথমে হতাহতদের স্বজনরা জানিয়েছিলেন, বাসায় ফ্রিজের কম্প্রেসার বিস্ফোরণে দগ্ধ হয়েছেন তারা। তবে পরে পুলিশ ও তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষের তদন্তে জানা যায়, রান্নঘরে জমে থাকা গ্যাসে ওই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে।

আব্দুল করিমের ভাই কামাল হোসেন বলেন, ‘কোনাপাড়া এলাকায় একটি মুদির দোকান চালাতেন আমার ভাই। সেহেরির খাবার রান্নার সময় ২০ এপ্রিল হঠাৎ তাদের বাসায় বিস্ফোরণ হয়। এতে আমার ভাবী-ভাই ও দুই বছরের শিশু কন্যা দগ্ধ হয়।’

শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের আবাসিক সার্জন আইয়ুব হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত চারটার দিকে স্বামী ও ভোর ছয়টার দিকে স্ত্রী মারা গেছেন। আব্দুল করিমের শরীরের ৫৪ শতাংশ এবং খাদিজার ৯৫ শতাংশ দগ্ধ ছিল।

‘তাদের দুই বছরের মেয়ে ফাতেমার শরীরের শতাংশ ৩৫ দগ্ধ হয়েছে। শিশুটির অবস্থা আশঙ্কাজনক।’

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে